আজ রবিবার। ৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ। ১৯শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ। ২১শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি। এখন সময় ভোর ৫:২২

যেসব খাবার খেয়ে ডেকে আনছেন অকাল মৃত্যু

যেসব খাবার খেয়ে ডেকে আনছেন অকাল মৃত্যু
নিউজ টি শেয়ার করুন..

মানুষের বেঁচে থাকার জন্য যেমন খাবার অপরিহার্য, তেমন কিছু খাবার আছে যা খেলে মানুষের অকাল মৃত্যু হতে পারে। আপনি জেনে অবাক হবেন যে, ডায়েটের কারণেই প্রতি পাঁচজনে একজনের জীবনের আয়ু কমে যাচ্ছে।

এক সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, প্রতি বছর এক কোটিরও বেশি মানুষ মারা যাচ্ছে শুধু খাবারের কারণেই।

ল্যানচেটে প্রকাশিত এক বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, প্রতিদিন আমরা এমন কিছু খাবার খাই যা ধূমপানের চেয়ে বেশি প্রাণহানি ঘটায়। বিশ্বব্যাপী প্রতি পাঁচটি মৃত্যুর মধ্যে একটির জন্য এই ডায়েট বা খাবারই দায়ী।

মানুষের অকাল মৃত্যু হতে পারে এমন কিছু খাবার রয়েছে সেগুলো হলো- লবণ, রুটি, সস বা মাংস- যেটার সঙ্গেই দেয়া হোক না কেন- এটিই জীবনের আয়ু কমিয়ে দেয়। তবে কিছু দেশ রয়েছে। যেমন- ফ্রান্স, স্পেন এবং ইসরাইল। এসব দেশ ডায়েট সম্পর্কিত মৃত্যুর সংখ্যা অনেক কম।

তবে দক্ষিণপূর্ব, দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়ার চিত্র উল্টো। ইসরাইলে যেখানে প্রতি এক লাখে এ ধরনের মৃত্যুর হার মাত্র ৮৯, সেখানে উজবেকিস্তানে ৪৯২ জন।

তবে প্রফেসর মুরে বলছেন, জাপানে আগে ব্যাপক লবণ খাওয়ার প্রবণতা থাকলেও তা এখন কমিয়ে এনছে তারা। আর চীনে প্রচুর পরিমাণে লবণ খায়। তবে লবণ খাওয়ার দিক দিয়ে যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ডেনমার্ক ও বেলজিয়াম পিছিয়ে আছে।

আরও পড়ুন : তেলাপিয়া মাছ ক্যান্সারের ঝুঁকি

প্রফেসর মুরে বলছেন, আপনার ওজন কত সেটা এখানে বিবেচ্য নয়। কোয়ালিটি ডায়েটই প্রথম কথা। তিনি সবজি, আঁশজাতীয় খাবার ও ফলমূল খাওয়া বাড়ানোর ওপর জোর দিয়েছেন।

প্রফেসর ফরউহি বলছেন, লোকজন জানলে আর রিসোর্স থাকলে মানুষ স্বাস্থ্যকর খাবার বেছে নিতে পারে। ফ্যাট, সুগার বা সল্ট এসব চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে মানুষের উচিত ভালো খাবারের দিকে মনোযোগ দেয়া।

গবেষকরা বলছেন, শুধুমাত্র স্থূলতার বিষয়ে নয় বরং দেখা হয়েছে কীভাবে নিম্নমানের খাদ্যাভ্যাস (পুওর কোয়ালিটি) হৃদযন্ত্রের ক্ষতি করছে বা ক্যানসারের কারণ হচ্ছে।

যেসব খাবার খাওয়া বিপজ্জনক।

দি গ্লোবাল বার্ডেন অব ডিজেস স্টাডি হলো গুরুত্বপূর্ণ একটি পর্যবেক্ষণ যেখানে দেখা হয়েছে কীভাবে বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে মানুষ মারা যাচ্ছে।

বিপজ্জনক খাদ্য হিসেবে যেসব উপাদানের কথা বলা হচ্ছে :

১. অতিরিক্ত লবণ খাওয়াই ৩০ লাখ মানুষের মৃত্যুর কারণ

২. কম দানাদার শস্য খাওয়া- ৩০ লাখ মানুষের মৃত্যুর কারণ

৩. ফলমূল কম খাওয়া- ২০ লাখ মানুষের মৃত্যুর কারণ

এছাড়া বাদাম, বীজ, শাকসবজি, সামুদ্রিক থেকে পাওয়া ওমেগা-৩ এবং আঁশজাতীয় খাবারের পরিমাণ কম হওয়াটাও মৃত্যুর বড় কারণগুলোর অন্যতম।

ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ক্রিস্টোফার মুরে বলেন, ওজন কমাতে অনেকে ডায়েট করে থাকেন। এক কোটি ১০ লাখ ডায়েট সম্পর্কিত মৃত্যুর মধ্যে এক কোটির মৃত্যু হচ্ছে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে। অতিরিক্ত লবণ উচ্চ রক্তচাপ, স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

তিনি বলেন, হার্টে ও রক্ত বহনকারী ধমনীর ওপর লবণের প্রভাব পড়ে সরাসরি যা হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধের ঝুঁকি তৈরি করে।

সূত্র : বিবিসি

নিউজ টি শেয়ার করুন..

সর্বশেষ খবর

আরো খবর