আজ শনিবার। ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ। ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ। ১০ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি। এখন সময় রাত ১১:২৯

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীকে হত্যার হুমকি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীকে হত্যার হুমকি
নিউজ টি শেয়ার করুন..

মারুফ হাসান ত্বোহা, জাবি প্রতিনিধিঃ
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) খেলতে যাওয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) হ্যান্ডবল দলের খেলোয়াড়দেরকে ‘হত্যার হুমকি’ দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তাঁরা। গতকাল রবিবার বিকালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলোয়াড়েরা এ অভিযোগ তুলে খেলা শুরুর আগেই মাঠ ছেড়ে চলে যান। তবে জাবি শারীরিক শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তারা অভিযোগের বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করছেন।

জানা যায়, গতকাল বিকাল চারটায় বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশীপ-২০১৯ এর হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতার সেমিফাইনাল খেলা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো। এতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিলো স্বাগতিক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল দলের।

নির্ধারিত সময়ের ৩০ মিনিট আগে তাঁরা মাঠে যান। এসময় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্র্থী আগ্নেয়াস্ত্র (পিস্তল) ঠেকিয়ে ইবির দলনেতা ও জাতীয় দলের হ্যান্ডবল খেলোয়াড়রা যদি মাঠে খেলে তবে তাঁদেরকে ক্যাম্পাস থেকে বের হতে দেওয়া হবে না। এমন হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে মাঠ ছেড়ে চলে যান তাঁরা।

জানতে চাইলে ইসলামী বিশ্বদ্যিালয়ের হ্যান্ডবল দলের দলনেতা ও জাতীয় হ্যান্ডবল দলের খেলোয়াড় আশিক খান বলেন, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী আমাদেরকে গতকাল থেকে উত্ত্যক্ত করছে। গত শনিবার আমাদেরকে মাঠে অনুশীলন করতে দেয়নি কয়েকজন শিক্ষার্থী যারা মাঠে ফুটবল খেলছিল। আজ আমাদের থাকার স্থান থেকে আমাদেরকে অনুসরণ করে তারা আসছে এবং বার বার আমাদেরকে মাঠে না খেলার জন্য এবং জাবি যাতে জয় পায় সে বিষয় নিয়ে হুমকি দিয়েছে।’

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের হ্যান্ডবল দলের টিম ম্যানেজার জাকারিয়া রহমান বলেন, ‘জানের নিরাপত্তার কারণে আমরা জাহাঙ্গীরনগর থেকে চলে এসেছি। যারা খেলা পরিচালনা করেছে তারাই বলেছে, আপনার চলে যান। এরপর সেন্ট্রালি যোগাযোগ করা হয়।

হ্যান্ডবল দলের কোচ শাহ আলম কচি বলেন, ‘খেলা পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক আলী জাফরকে জানিয়ে আমরা মাঠ ত্যাগ করি।’ তবে আলী জাফর বলেন, ‘ওনারা (ইবি) আমাকে অভিযোগ করেনি। আমি কিছু দেখিও নাই। কিছু জানিও না।’
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুন-উর-রশীদ আশকারি বলেন, ‘আমাদের খেলা পরিচালক ও টিম ম্যানেজার আমাকে জানিয়েছেন যে, এরকম একটি ঘটনা ঘটেছে এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। পরবর্তীতে তাঁরা কি করেছে সে বিষয়ে এখনো কিছু জানি না।’

তবে হুমকির কোন ঘটনা ঘটেছে কিনা সে বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) হাবিবা ইয়াসমীন। তিনি বলেন, ‘এটি একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। তবে আদৌ ঘটনাটা ঘটেছে কিনা এটি নিয়ে আমাদের সন্দেহ রয়েছে।

এরকম যদি কোন ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে খেলোয়াড়রা আমাদের সাথে দেখা না করে কথা না বলে আগেই চলে গেলো কেন? তাদের কর্মকর্তারা আগেই খেলোয়াড়দেরকে পাঠিয়ে দিয়ে তারপর তারা আমাদেরকে জানিয়েছে তারা খেলতে আগ্রহী না। আমরা এতো সুন্দর করে টুর্নামেন্ট পরিচালনা করছি শেষের দিকে চলে এসছে এমন সময় এই অভিযোগ তুলে একে বির্তকিত করা হচ্ছে।’

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘কে বলেছে বা কারা হুমকি দিয়েছে সে বিষয়ে তাঁরা কিছু বলেননি। কেউ হুমকি দিয়েছে কিনা সে বিষয়ে আমাদের সংশয় আছে। এমনও তো হতে পারে বহিরাগত কোন দুষ্কৃতিকারী এরকম ঘটনা ঘটতে পেরেছে। আমরা তাঁদেরকে নিরাপত্তার গ্যারান্টি দিয়েছি। তাঁরা তবুও খেলতে আসেননি।’

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ভেন্যুর খেলা পরিচালনা কমিটির সভাপতি এটিএম আতিকুর রহমান বলেন, ‘তাঁরা মৌখিকভাবে অভিযোগ করেছেন। কিন্তু কোন প্রমান দিতে পারেনি। এরপর খেলা পরিচালনা কমিটি আগামীকাল (আজ) বিকাল চারটায় খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

নিউজ টি শেয়ার করুন..

সর্বশেষ খবর

আরো খবর