আজ শনিবার। ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ। ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ। ১০ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি। এখন সময় রাত ১১:৫৬

বাড়ি মালিকের বিরুদ্ধে যবিপ্রবির শিক্ষার্থীকে প্রাননাশের চেষ্টার অভিযোগ

বাড়ি মালিকের বিরুদ্ধে যবিপ্রবির শিক্ষার্থীকে প্রাননাশের চেষ্টার অভিযোগ
নিউজ টি শেয়ার করুন..

জুবায়ের হাসান,যবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মারধর ও শ্বাসরোধ করে প্রাননাশের চেস্টা করে গভীর রাতে বাসা থেকে তাড়িয়ে দিয়েছেন পালবাড়ী, ঘোষপাড়া, গাজী মহলের বাড়িওয়ালা। যশোর শহরের পালবাড়ী, ঘোষপাড়া এলাকার গাজী মহলের একটি ফ্লাট ভাড়া করে থাকতেন যশোর বিজ্ঞান ও

প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ জন শিক্ষার্থী। গত সোমবার সকালে বাসা ছেড়ে দেওয়ার কথা ছিল তাদের, কিন্তু আগেরদিন রাত ৯:৩০ টার দিকে বাড়িওয়ালা হাসান গাজী, তার স্ত্রী ও শ্যালক কারেন্ট বিল ও অন্যান্য হিসাব

নিয়ে আসে এবং তারা সব ঠিকমত বুঝিয়ে দেয়। এরপর বিভিন্ন দোষ ও সামান্য ছোটখাটো জিনিস এর ক্ষয়ক্ষতি দাবি করতে শুরু করে দুর্ব্যহার ও এক পর্যায়ে শিক্ষার্থী শোভনকে গলা টিপে ধরে প্রাননাশের চেস্টা করেন।

মেসে বসবাসরত শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ করলে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। বাড়িওয়ালা তৎখনাৎ সবাইকে নেমে

যাওয়ার কথা বললে শিক্ষার্থী আব্দুর রহিম গাজী (শোভন) প্রতিবাদ করলে বাড়িওয়ালার স্ত্রী ঐ ছাত্রের উপর চড়াও হয় এবং শ্বাস রোধের উদ্দেশ্যে গলা চিপে ধরে, এতে তার গলা কেটে রক্ত পরতে থাকে, তবে বাকি সবার

হস্তক্ষেপে তখন ছেরে দেয়। পরে বাড়িওয়ালার সেলক তাদের প্রাণনাষের হুমকি দেয় ও খুবই অবানবিক আচারণ

করে। ফলে তারা বাধ্য হয়ে তখন সবাই মেস ছেড়ে বেরিয়ে আসে। যবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা বললেন, এর আগেও কয়েকবার তাদের সাথে এ ধরনের আচারণ করা হয়, তাই সবাই মেস

ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে এবার সব ধরনের সীমা অতীক্রম করে তারা। মেসে সবার সাথে ৪০-৪৫ মিনিট যে কটুক্তিকর ও অশালীন আচারণ করা হয় তা ভাষায় প্রকাশ করার নয়। আমরা শিক্ষার্থী, আমরা ব্যাচেলর,

আমরা পিতামাতাকে ছেড়ে এখানে শিক্ষার জন্য এসেছি। এখানে বিশ্ববিদ্যালয়ে আমাদের পিতামাতার সমতুল্য শিক্ষকদের কাছে এর সঠিক বিচার চাই।

বাড়ির মালিক হাসান গাজী মুঠোফোনে জানান, এধরনের কোন ঘটনায় ঘটেনি। তবে তার স্ত্রী বলেন ঐদিনের কোন কথা বলতে রাজী হননি।


নিউজ টি শেয়ার করুন..

সর্বশেষ খবর

আরো খবর